স্বাগতিক নয়, শক্তিমত্তায় ফেভারিট ইংল্যান্ড

0
141

৪৪ বছরেও বিশ্বকাপ জিততে পারেনি ইংল্যান্ড। ক্রিকেট যাদের আবিস্কার, তারা এখনো ছোয়া পায়নি বিশ্বকাপের। বর্তমানে আইসিসির ১ নাম্বার র‌্যাংর্ঙ্কিংয়ে অবস্থানকারী দল ইংল্যান্ড। গত ২ বছর যাবত কোচ ট্রেভর বেইলিশ মর্গানের অধীনে ইংল্যান্ড টিমকে গড়ে তুলছে মজবুতভাবেই। শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন-আপ, মারাত্মক বোলিং এবং দারুণ ফিল্ডিং নিয়ে তারা বিশ্বকাপে ভালো প্রস্তুতি নিয়েই এসেছে।

১৯৭৫-১৯৯২ সালে অনুষ্ঠিত ৫ বিশ্বকাপের ১৯৭৯,১৯৮৭ এবং ১৯৯২ তিন বার ফাইনাল খেলা দল ইংল্যান্ড। ১৯৭৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে ২৮৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৯৪ রানেই গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড। ১৯৮৭ বিশ্বকাপের ফাইনালে কলকাতায় অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৭ রানে পরাস্ত এবং ১৯৯২ বিশ্বকাপে মেলবোর্নে পাকিস্তানের কাছে ২২ রানে হেরে তিন বারের মতো ফাইনাল হারের স্বাদ গ্রহণ করে ইংল্যান্ড। এরপরে কিছুটা দুঃসময় কাটাতে থাকে। ১৯৯৯, ২০০৩ এবং ২০১৫ সালে গ্রুপ স্টেজ থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে।

কিন্তু এবারের বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ইংরেজদের খুব ভালোই মনে হচ্ছে। জেসন রয়, বেয়ারস্টো, মর্গান, জস বাটলার, রুট দারুন ফর্মে। বোলারদের মধ্যে বেন স্টোকস, মঈন আলীও আছেন ভালো ফর্মে। অ্যালেক্স হ্যালস এর টিম ম্যানেজমেন্টের সাথে সম্পর্ক ভালো না থাকার কারণে এবং ফর্ম খারাপ থাকার কারণে দলের বাহিরে। ইংল্যান্ড-পাকিস্থান সিরিজ থেকে দেখা যাচ্ছে ফ্লাট ও ড্রাই উইকেটে খেলতে হবে। আর সে কারনে ডেভিড উইলি, ক্রিশ ওয়াকস, লিয়াম প্লাঙ্কেট, মার্ক উড এবং স্টোকস দের মতো বিধ্বংসী পেসারদের ব্যবহার করবে ইংল্যান্ড। ফিল্ডিং এর দিকেও ইংল্যান্ড বেশ উন্নতি করেছে বিগত কয়েক বছরে। এই বিশ্বকাপের সেরা ফিল্ডিং লাইন-আপ বলা যায় এই দলকে।

সর্বশেষ ১৪ ম্যাচের ১০ টি জয়, ২ টি হার এবং ২টি পরিত্যক্ত। এমন পার্ফরমেন্স তাদেরকে আলাদা শক্তি হিসেবে কাজ করবে ভালো খেলার পিছনে।

এবারের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের তুরুপের তাস হিসেবে থাকবেন যারাঃ

জস বাটলার

১৯৯০ সালে টাউনটন , সামরেস্ট এ জন্ম নেওয়া ২৮ বছর বয়সী এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান যেকোনো ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দিতে পারেন। ইংল্যান্ড এর হয়ে ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন ১৩১ টি, ১০৮ ইনিংসে ৮ সেন্সসুরিতে করেছেন ৩৫৩১ রান। ওয়ানডেতে তার স্ট্রাইক রেট ১১৮৷ মারপুটে এই ব্যাটসম্যান এর রয়েছে সব অসাধারণ শর্ট খেলার ক্ষমতা। তাই যেকোনো সময়ই ইংল্যান্ড এর তুরুপের তাস হিসেবে জ্বলে উঠতে পারেন এই ইংলিশ ব্যাটসম্যান।

জো রুট

১৯৯০ সালে শেলফিল্ডে জন্ম নেওয়া এই ২৮ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যানের ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের হয়ে অভিষেক হয় ২০১৩ সালে ভারতের বিরুদ্ধে। টপ অর্ডার এই ব্যাটসম্যান ওয়ানডেতে ইংল্যান্ড এর হয়ে ১৩২ ম্যাচে, ১২৪ ইনিংস এ ৫০.৪৭ গড় নিয়ে করেছেন ৫৩০০ রান। ওয়ানডেতে ১৪ টি শতক রয়েছে এই ব্যাটসম্যান এর। বোলিংও ও দক্ষতা রয়েছে এই খেলোয়াড় এর দলের প্রয়োজনে এই রাইট আর্ম এবং লেগব্যাক বোলিং এ দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে প্রস্তুত জো রুট।

ইয়ান মর্গান

১৯৮৬ সালে ডাবলিনে জন্ম নেওয়া এই ৩২ বছর বয়সী ক্রিকেটার বর্তমানে ইংল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক। অথচ ওয়ানডে ক্রিকেটে তার অভিষেকটা হয়েছিলো আয়ারল্যান্ড এর হয়ে স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২০০৬ সালে। লেফ্ট হ্যান্ড এই ব্যাটসম্যান ওয়ানডেতে ২২২ ম্যাচে ২০৭ ইনিংসে, ১২টি শতক নিয়ে করেছেন ৬৯৭৭ রান। অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার মিডল- অর্ডারে রাখতে পারেন দারুণ ভূমিকা।

২০১৯ বিশ্বকাপের জন্য ইংল্যান্ড স্কোয়াড

ইউন মরগান (অ), জেসন রয়, জনি ব্যারেস্টও (উকি), জেমস ভিনস, জো রুট, বেন স্টোকস, জস বাটলার (উকি), মঈন আলি, আদিল রশিদ, লিয়াম ডওসন, ক্রিসস ওকোস, লিয়াম প্লানকেট, জফ্রা আর্চার, টম ক্যারেন, মার্ক ওড।

ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ যাত্রা শুর হবে ওভালে ৩০ই মে দক্ষিন আফ্রিকার বিরুদ্ধে। ৩ জুন ট্রেনব্রিজে পাকিস্তানের মুখামুখি হবে ইংল্যান্ড। ৮ জুন কার্ডিফে এশিয়ার আরেক দল বাংলাদেশের সাথে খেলবে ইংল্যান্ড । ১৪ জুন সাউদাম্পটনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখামুখি হবে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। ১৮ জুন ওর্ড ট্রাপোডে আফগানিস্তান এর বিরুদ্ধে মাঠে নামবো ইংল্যান্ড। ২১ জুন হেডেংলি স্টেডিয়ামে শ্রীলংকার বিরুদ্ধে মাঠে নামবে ইংল্যান্ড। ২৫ই জুন লর্ডসে অস্ট্রেলিয়াকে আতিথ্য দিবে ইংল্যান্ড। ৩০ জুন এজবাসটনে ভারতের মুখামুখি হবে ইংল্যান্ড। বিশ্বকাপ এর গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে ৩ জুলাই চেষ্টারলি স্ট্রিট এ নিউজিল্যান্ড এর বিরুদ্ধে মাঠে নামবে ইংল্যান্ড। নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাস এবং বর্তমান পারফরমেন্সই বলে দিচ্ছে এবারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে ফেভারিট স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

লিখেছেন : পিয়াল হাসান মুরাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here