সাবিনাদের সামনে অলিম্পিক বাছাইয়ের চ্যালেঞ্জ

0
496

অলিম্পিক ফুটবলে খেলার স্বপ্ন নিয়ে আজ মায়ানমার যাচ্ছে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। অলিম্পিক ফুটবলে এশিয়ান অঞ্চলের বাছাই পর্বের প্রথম রাউন্ডে অংশ নিতে যাচ্ছেন সাবিনারা। ৮ নভেম্বর মিয়ানমারে শুরু হচ্ছে বাছাই পর্বের প্রথম রাউন্ডের ‘সি’ গ্র“পের খেলা। স্বাগতিক মিয়ানমার ছাড়াও এই গ্র“পে আছে দক্ষিণ এশিয়ার দল বাংলাদেশ, ভারত ও নেপাল। প্রথম ম্যাচেই স্বাগতিক মায়ানমারের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশের মেয়েরা।

জুনিয়র লেভেলে মেয়েদের পারফরম্যান্স দারুণ হলেও সিনিয়র লেভেলে গেলেই দলটা পথ হারিয়ে ফেলে। এর অবশ্য যথেষ্ট কারণও আছে। বাংলাদেশের নারী ফুটবল দল মানেই কিশোরীদের প্রাধান্য। স্ট্রাইকার সাবিনা খাতুন ছাড়া বাকিরা অনুর্ধ্ব-১৮ এর মধ্যে। এ দলটিই কয়েকদিন আগে তাজিকিস্তানে খেলে এসেছে এএফসি অনুর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্ব। সেখানে দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে ৭-০ আর চাইনিজ তাইপের কাছে ২-০ গোলে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেয় বাংলাদেশ। শেষ ম্যাচে স্বাগতিক তাজিকিস্তানকে ৫-১ গোলে হারিয়ে সান্ত্বনার জয় নিয়ে ঘরে ফিরে তারা। তবে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৯’র চেয়েও অলিম্পিক গেমসের বাছাই পর্ব কঠিন হবে। এখানে পুরুষ ফুটবল দল অনুর্ধ্ব-২৩ হলেও মেয়েদের প্রতিযোগিতা জাতীয় দলের। চ্যালেঞ্জটা এ জন্যই বেশি বাংলাদেশের। এশিয়ার ৪৭ দেশের মধ্যে ২৫ দেশ অংশ নিচ্ছে বাছাইয়ে। এর মধ্যে প্রথম রাউন্ডে অংশ নিচ্ছে ১৮ দেশ ৪ গ্র“পে ভাগ হয়ে। ফিফা মহিলা র‌্যাংকিং অনুযায়ী ভিয়েতনাম ও উজবেকিস্তান খেলবে সরাসরি দ্বিতীয় রাউন্ডে। র‌্যাংকিংয়ের আরো উপরের ৫ দেশ অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, উত্তর কোরিয়া, চীন ও থাইল্যান্ড সরাসরি খেলবে তৃতীয় রাউন্ডে। প্রথম পর্বের প্রতি গ্র“পের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল উঠবে দ্বিতীয় রাউন্ডে। ৩ গ্র“পে ভাগ হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ড খেলার পর গ্র“প চ্যাম্পিয়নরা উঠবে তৃতীয় রাউন্ডে। এশিয়া থেকে অলিম্পিকের মূল পর্বে খেলবে তিনটি দল। স্বাগতিক হিসেবে জাপান এরই মধ্যে মূল পর্বে স্থান করে নিয়েছে।

মায়ানমার সফর উপলক্ষ্যে গতকাল বাফুফে ভবনে সংবাদ সম্মেলনে কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলেন, ‘আমরা অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্যই যাচ্ছি। তিনটি দলই আমাদের চেয়ে র‌্যাংকিংয়ে এগিয়ে। মিয়ানমার হবে আমাদের জন্য নতুন চ্যালেঞ্জ। আশা করি আমাদের মেয়েরা ফাইট দিতে পারবে।’ জাতীয় দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন বলেন, ‘আমরা প্রায় দুই বছর এক সঙ্গে আছি। তাই বোঝাপড়ায় কোনো সমস্যা হবে না। প্রতিপক্ষরা আমাদের চেয়ে র‌্যাংকিংয়ে এগিয়ে থাকলেও আমরা ভালো খেলার চেষ্টা করবো।’

বাংলাদেশ দুই বছর না খেলায় এখন র‌্যাংকিংয়ে নেই। সর্বশেষ লাল-সবুজ জার্সিধারীরা ছিল ১১২ তম স্থানে। মিয়ানমারের র‌্যাংকিং ৪৪, ভারত ৫৯ ও নেপাল ১০৯।

অলিম্পিক বাছাইয়ে বাংলাদেশের সূচি
৮ নভেম্বর : বাংলাদেশ-মিয়ানমার
১১ নভেম্বর : বাংলাদেশ-ভারত
১৩ নভেম্বর : বাংলাদেশ-নেপাল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here