শেখ জামালের কাছে হারলো গাজী

0
159

স্টাফ রিপোর্টারঃ ফতুল্লায় গাজী গ্রুপের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ওপেনার ইমতিয়াজ তান্না’র উইকেট হারায় শেখ জামাল। ওপেনার ফারদীন হাসান অনিক টপ অর্ডারের তানভীর হায়দার এবং মিডল অর্ডারে খেলতে নামা নাসিরকে সাথে নিয়ে ছোট দুটি জুটি গড়ে এগিয়ে নিয়ে যান দলকে। এরপর অধিনায়ক নুরল হাসানের সাথে ৫৩ রানের একটি জুটি গড়েন। ব্যক্তিগত ৪৬ রান করে ফিরে যান ফারদিন।

ফারদীনের বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন অধিনায়ক সোহান এবং দলটির লঙ্কান অলরাউন্ডার আসেলা গুনারত্নে। এই দু’জনের ব্যাটে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে শেখ জামাল। পঞ্চম উইকেটে দু’জনে মিলে যোগ করেন ১৩২ রান। ৭৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে গুনারত্নে ফিরে গেলেও শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন অধিনায়ক সোহান। নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৬ উইকেটে শেখ জামালের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৭৭ রান। সোহান অপরাজিত থাকেন ব্যক্তিগত ৮১ রানে। গাজী’র হয়ে ৯ ওভার বল করে ৩৭ রান খরচায় ৩ উইকেট নেন দলটির ভারতীয় অলরাউন্ডার পারভেজ রসুল। ১টি করে উইকেটের দেখা পান মেহেদি হাসান, কামরুল ইসলাম রাব্বি এবং মাইশুকুর রহমান।

২৭৮ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় গাজী। মাত্র ৪৭ রানের মধ্যে দলের পাঁচ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে ফেলে দলটি। এরপর অভিজ্ঞ শামসুর রহমান শুভ হাল ধরেন দলের। তৌহিদ তারেকের সাথে ৫৭ রানের একটি জুটি গড়ে দলকে কিছুটা বিপদমুক্ত করেন।

তৌহিদ ফিরে গেলে মেহেদি হাসানের সাথে জুটি গড়ে দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখাতে থাকেন শামসুর। তবে দলীয় ১৯৩ এবং ব্যক্তিগত ৮১ রানে শামসুর ফিরে গেলে সেই স্বপ্ন থেমে যায়। ইনিংসের ১৮ বল বাকি থাকতে ২৩৪ রানে অলআউট হয় গাজী গ্রুপ। ফলে শেখ জামালের কাছে ৪৩ রানের হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় দলটিকে। শেখ জামালের হয়ে দুর্দান্ত বল করেছেন সৈয়দ খালেদ ও সালাউদ্দিন শাকিল। দু’জনেই তিনটি করে উইকেট নিয়েছেন। দলটির বিদেশি অ্যাসেলা গুনারত্নে ঝুলিতে গেছে ২টি উইকেট। ১টি উইকেটের দেখা পেয়েছেন এনামুল হক জুনিয়র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here