লোকের বয়স বাড়ে রোনালদোর কমে!

0
171

জুভেন্টাসে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য যখন এসেছিলেন রোনালদো। ছবি: রয়টার্সজুভেন্টাসে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য যখন এসেছিলেন রোনালদো। ছবি: রয়টার্স

জুভেন্টাসে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর স্বাস্থ্য পরীক্ষায় জানা গেছে, পর্তুগিজ তারকার শারীরিক গঠন ২০ বছর বয়সী তরুণদের মতো

লোকের বয়স বাড়ে আর ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর কমে! বিশ্বাস হচ্ছে না? স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম দেপোর্তেস কোপের সংবাদকর্মী আরাঞ্চা রদ্রিগেজ গত এপ্রিলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছিলেন, ৩৩ বছর বয়সী রোনালদো যেন ২৩ বছরের টগবগে যুবক! তখন পর্তুগিজ তারকার শরীরের গঠন বিশ্লেষণ করে তিনি অবিশ্বাস্য কিছু তথ্য পেয়েছিলেন, যা সচরাচর ২৩ বছর বয়সী তরুণদের থাকে। এবার জুভেন্টাসে রোনালদোর স্বাস্থ্য পরীক্ষায় জানা গেল, তাঁর শারীরিক গঠন ২০ বছর বয়সী তরুণদের মতো!
ফুটবলারদের শরীরে সচরাচর চর্বির হার গড়ে যেখানে ১০-১১ শতাংশ থাকে, রোনালদোর সেখানে মাত্র ৭ শতাংশ। এটা আগেই নিজের প্রতিবেদনে জানিয়েছিলেন রদ্রিগেজ। জুভেন্টাসের স্বাস্থ্য পরীক্ষাতেও এর কোনো ব্যতিক্রম হয়নি।পাল্টায়নি তাঁর শরীরে পেশির গঠনের অনুপাত। রোনালদোর যেখানে ৫০ শতাংশ, অন্যরা সেখানে সচরাচর ৪৬ শতাংশের ওপরে উঠতে পারে না। বেইন স্পোর্টস জুভেন্টাসে রোনালদোর স্বাস্থ্য পরীক্ষা নিয়ে প্রতিবেদন করতে গিয়ে এমন তথ্যই তুলে ধরেছে।
সদ্য সমাপ্ত রাশিয়া বিশ্বকাপেও রোনালদোকে দেখা গেছে টগবগে তরুণের মতো। দৌড়েছেন ঘণ্টায় ৩৩.৯৮ কিলোমিটার গতিতে। বিশ্বকাপে খেলা খেলোয়াড়দের মধ্যে যা সবচেয়ে বেশি। ১৯ বছর বয়সী কিলিয়ান এমবাপ্পে পর্যন্ত তাঁকে টপকাতে পারেননি। এই বয়সে তাঁর এমন অবিশ্বাস্য শারীরিক সক্ষমতায় অনেকে অবাক হলেও রোনালদো নিজে কিন্তু অবাক হন না।
জুভেন্টাস তাঁকে আনুষ্ঠানিকভাবে নিজেদের খেলোয়াড় হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার দিন স্বয়ং রোনালদোই বলেছেন, ‘আমার বয়সে খেলোয়াড়েরা সাধারণত চীনে যায়। কিন্তু আমি বাকিদের চেয়ে আলাদা, যাঁদের বয়স ৩২, ৩৩ কিংবা ৩৪ বছর।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here