বিপিএলে অব্যবস্থাপনা, প্রশ্ন ধারাভাষ্য ও টিভি সম্প্রচারের মান নিয়ে

0
276

বিপিএল আয়োজনে অব্যবস্থাপনার অভিযোগ উঠেছে। প্রশ্ন উঠেছে টিভি সম্প্রচারের মান নিয়েও। মাঠে দর্শক উপস্থিতিও কম। ডিসিশান রিভিউ সিস্টেম প্রযুক্তি নিয়েও তৈরী হচ্ছে বির্তক। ধারাভাষ্য তো আরো হাস্যকর অবস্থা।প্রতিদিনই হচ্ছে অনেক অনেক ভুল।

এসব সমস্যা স্বীকার করে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শেখ সোহেল বলেছেন, আগামী সপ্তাহ থেকে ভুল-ক্রুটি সারিয়ে জমে উঠবে এবারের আসর।

এদিকে, সরকারীভাবে চট্টগ্রাম ও কুমিল্লার নাম পরিবর্তন হওয়ায় ফ্র্যাঞ্চাইজি দু’টিকে নাম পরিবর্তনের আহ্বান জানিয়েছে গভর্নিং কাউন্সিল। সরকারি নির্দেশনা মেনে ফ্র্যাঞ্চাইজি দুটির নাম পরিবর্তন করা উচিত বলে মনে করেন শেখ সোহেল।

অনেকটা নীরবেই শুরু হয়েছে বিপিএল। প্রচারণাও হয়নি এবার। প্রস্তুতির জন্য যথেষ্ট সময়ও পায়নি দলগুলো। যার প্রভাব পড়েছে মাঠে। মিরপুরে দর্শক আগ্রহে দেখা যাচ্ছে ভাটা।

গভর্নিং কাউন্সিল বলছে, নির্বাচনের কারণে প্রত্যাশিতভাবে শুরু করা যায়নি বিপিএল ষষ্ট আসর।

এবার সম্প্রচারের দায়িত্ব নিয়েছে বিসিবি নিজেই। প্রশ্ন উঠেছে মান নিয়ে। ডিসিশান রিভিউ সিস্টেম বা ডিআরএস নিয়েও তৈরী হচ্ছে বিতর্ক। নেই স্নিকো মিটার ও আল্ট্রা এজ প্রযুক্তি। ফলে সিদ্ধান্ত নিতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে আম্পায়ারদের।

তবে গভর্নিং কাউন্সিল মনে করছে, প্রযুক্তির সঙ্গে মানিয়ে নিতে একটু সময় লাগছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই সব কিছুর সমাধান হবে বলে আশা করছেন তারা।

মিরপুরের একাডেমি মাঠে অনুশীলনের চাপ কমাতে দলগুলোকে নিজস্ব মাঠ তৈরীর তাগিদ দিয়েছে গভর্নিং কাউন্সিল। মাঠে দর্শক টানতে অনলাইনে আরো বেশি টিকিট ছাড়ার পরিকল্পনাও আছে কাউন্সিলের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here