পিলিকুয়াওর অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে সিরিজে সমতা আনলো দক্ষিণ আফ্রিকা

0
107

স্পোর্টস ডেস্কঃ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে পাকিস্তানকে ৫ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ১-১ সমতা এনেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। বাটে-বলে দারুন পারফরম্যান্সে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন পিলিকুয়াও।

ডারবানে টস হেরে ব্যাটিং করতে নামে পাকিস্তান। শুরুটা ভালো ছিলো না পাকিস্তানের। দলীয় ১৫ রানে ইমাম-উল- হকের উইকেট হারায় তারা। ৫ রানে আউট হন রাবাদার বলে। বাবর আজম করেন ১২ রান।

৫৮ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে পাকিস্তান। দলীয় ৫৮ রানে আউট হন ৯ রান করা হাফিজ এবং ৪৪ বলে ২৬ করা ফখর জামান। অভিজ্ঞ শোয়েব মালিক ৩৪ বলে ২১ রান করে আউট হন। আউট হন পিলিকুয়াওর বলে। পিলিকুয়াও একাই ধসিয়ে দেন পাকিস্তানি লোয়ার অর্ডার। ৯.৫ ওভার বল করে মাত্র ২২ রান দিয়ে ৪ উইকেট শিকার করেন পিলিকুয়াও।

শত রানের ভেতর থামতে পারতো পাকিস্তানের ইনিংস তবে অধিনায়ক সরফরাজ এবং পেসার হাসান আলীর দারুন এক জুটিতে ২০০ পেরোনো সংগ্রহ পায় পাকিস্তান। ৫৯ বলে ৪১ করে পিলিকুয়াওর বলে আউট হন সরফরাজ,তাকে দারুন সঙ্গ দেন ৪৫ বলে ৫৯ করা হাসান আলী। ৩ ছয় আর ৫ চার মারেন হাসান আলি। ২০০ রানের লড়াকু পুঁজি পায় পাকিস্তান।

ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাকিস্তানের মতো শুরুটা ভালো হয়নি আফ্রিকারও। মাত্র ২৯ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বসে প্রোটিয়ারা। টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান হেন্ড্রিক্স,আমলা, দু প্লেসিস কেউই ছুঁতে পারেনি দুই অঙ্কের স্কোর। হেন্ড্রিক্স ৫,আমলা ৮,দু প্লেসিস ৮ রান করে আউট হন। তিনজনই আউট হন শাহীন আফ্রীদি বলে।

দলীয় ৮০ রানের সময় জোড়া আঘাত হানেন শাদাব খান,ফেরান ৩১ করা মিলারকে আর ‘ডাক’ খাওয়া ক্লাসেনকে। ক্লাসেনের বিদায়ে হারের শঙ্কায় তখন দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে সেখান থেকে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন দাসেন ও পিলিকুয়াও। দাসেন-পিলিকুয়াও জুটি আফ্রিকাকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যায়।

তাদের গুরুত্বপূর্ণ জুটি থেকে আসে ১২৭ রান। দাসেন খেলেন ১২৩ বলে ৮০ রানের দায়িত্বশীল ইনিংস। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন ৮০ বলে ৬৯ করা পিলিকুয়াও। শাহীন আফ্রিদি তিনটি,শাদাব খান নেন একটি উইকেট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here