নতুন দুটি নিয়ম নিয়ে আসছে টেস্ট ক্রিকেট!

0
78

স্পোর্টস ডেস্কঃ ধুমধুমার টি-টোয়েন্টির যুগে বনেদি টেস্ট ক্রিকেট যেন আতুর ঘরে যেতে বসেছে। দিন দিন জনপ্রিয়তা হারাচ্ছে অভিজাত টেস্ট ক্রিকেট। সময়ের সাথে বাণিজ্যিকরণের কারণে ব্যাট-বলের খেলার সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের দিকেই বেশি ঝুঁকছে সমর্থকেরা।

তবে টেস্ট ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে এবার তাতে নতুন কিছু নিয়ম যুক্ত করতে যাচ্ছে এমসিসি। নতুন দুটি আইনের প্রস্তাব এনেছে এমসিসি। এই দুইটি আইন হলো, টেস্টেও ফ্রি হিট নিয়ে আসা এবং শট ক্লক পদ্ধতি। সময় বাঁচানোর পাশাপাশি টেস্ট ক্রিকেট নো বলে ফ্রি হিট থাকার ব্যাপারে মত এমসিসির।

টেস্টে ফ্রি হিট দর্শকের মাঝেও বেশ উত্তেজনা আনবে বলে বিশ্বাস এমসিসির সদস্য শেন ওয়ার্নের। ওয়ার্ন বলেন, ‘ধরেন আমি একটা নো বল করলাম, সেটায় ব্যাটসম্যান আউট হলো। কিন্তু এরপর দেখা গেলো যে সেটা নো বল ছিল। ব্যাটসম্যান প্রথমে ভাববে সে আউট, পরে সে দেখবে এটা ফ্রি হিট। দর্শকরাও প্রথমে ভাববে তাদের প্রিয় ক্রিকেটার আউট, এরপর তাঁরা ফ্রি হিট দেখে উচ্ছ্বসিত হবে। এই উত্তেজনাটা ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে আছে, টেস্টে কেন থাকবে না?’

স্লো ওভার রেটের কারনে দর্শক বিমুখতা বেড়েছে টেস্ট ক্রিকেটে। সেকারণে কীভাবে ম্যাচের মাঝে নষ্ট হওয়া সময় কমানো যায়, এ নিয়ে বেশ কয়েক বছর ধরেই ভাবছে আইসিসি। এমসিসিও তাদের ‘গবেষণা’ চালিয়ে গেছে। গত সপ্তাহে ভারতের ব্যাঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকের পর এমসিসির প্রধান মাইক গ্যাটিং অন্য সদস্যদের সাথে নিয়ে বেশ কিছু প্রস্তাবনা তৈরি করেছেন।

বাস্কেটবল খেলার নিয়মে এরই মধ্যে চালু আছে শট ক্লক পদ্ধতি সেই প্রস্তাবনাতে সময় বাঁচাতে স্কোরবোর্ডে বিশেষ ধরনের একটি ঘড়ি বসাতে চায় এমসিসি। যাকে ডাকা হবে ‘শট ক্লক’ নামে। এই নিয়মে ওভার শেষে ৪৫ সেকেন্ড সময় গণনা করবে এটা। নতুন ব্যাটসম্যান আসার বেলায় সেটা হবে ৬০ সেকেন্ড আর বোলার পরিবর্তনের জন্য ৮০ সেকেন্ড। যদি আইসিসির বেঁধে দেয়া সময়ের চেয়ে কোন দল বেশি সময় ব্যয় করে তাহলে তাৎক্ষণিকভাবে অভিযুক্ত দলকে নির্দিষ্টসংখ্যক রান জরিমানা করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here