জাতীয় ক্রিকেট লীগে ষষ্ঠবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হলো রাজশাহী বিভাগ

0
187

২০ তম আসরে বরিশাল বিভাগকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় জহুরুল ইসলামের নেতৃত্বাধীন রাজশাহী বিভাগ।

এর আগে ২০১১-১২ মৌসুমে সর্বশেষ তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। ২০ তম আসরে এস চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মধ্যদিয়ে খুলনার সাথে যৌথভাবে ছয়বার শিরোপা জয়ের স্বাদ পেলো রাজশাহী বিভাগ।

রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত লীগের শেষ রাউন্ডের ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে রাজশাহীর তরুণ পেসার মোহর শেখের বোলিং তোপে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৯৭ রানে অলআউট হয়ে যায় বরিশাল বিভাগ।
মাত্র ২৪ রান দিয়ে ৫ উইকেট নেন মোহর।

তবে প্রথম ইনিংসে বড় লীড নেয়ার সুযোগ থাকলেও তা করতে ব্যর্থ হন রাজশাহীর ব্যাটসম্যানরা। বরিশালের লেগ স্পিনার মনির হোসেনের ৫ উইকেট স্বীকারের ফলে মাত্র ১৬০ রানেই থামে রাজশাহীর প্রথম ইনিংস। রাজশাহীর পক্ষে ব্যাক্তিগত সর্বোচ্চ ৭৮ রানের ইনিংস খেলেন জুনায়েদ সিদ্দিকী।

তবে ৬৩ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ভালোই জবাব দেয়া বরিশালের ব্যাটসম্যানরা। আল-আমিন, শামসুল ইসলামের অর্ধশতকে ভর করে ৩৪৬ করে বরিশাল।দলের পক্ষে আল-আমিন সর্বোচ্চ ৯৭ রান করেন।এছাড়া শামসুল করেন ৫৬ রান পাশাপাশি নুরুজ্জামানের ব্যাট থেকে আসে ৪৫ রান।

জয়ের জন্য রাজশাহীর সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৮৪ রান। বুধবার ২ উইকেটে ১৮৪ করে দিন শেষ করে রাজশাহী। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও অর্ধশতক করেন জুনায়েদ সিদ্দিকী। দিন শেষে সিদ্দিকী ৬৫ আর অধিনায়ক জহুরুল ইসলাম অপরাজিত থাকেন ২৫ রান করে।

বৃহস্পতিবার হাতে ৮ উইকেট নিয়ে বাকি ১০২ রান তাড়া করতে নামেন দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান। তৃতীয় উইকেটে দুজন যোগ করেন মোট ১৪৯ রান। পাঁচ চার ও তিন ছক্কায় ১০৮ বলে ৬৪ করে জহুরুল ফিরে গেলেও অপর প্রান্তে ঠিকই ১৮১ বলে ১৭ চারের সাহায্যে ১২০ রান করে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান জুনায়েদ সিদ্দিকী।

দুই ইনিংসে অসাধারন ব্যাটিং করায় ম্যাচ সেরা হন একসময় জাতীয় দলের হয়ল খেলা এই বাঁহাতি ওপেনার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here