চট্টগ্রাম আবাহনীর জয়, মোহামেডানের ড্র

0
229

গত মৌসুমে স্বাধীনতা কাপের ফাইনালে ২-০ গোলে আরামবাগের কাছে হেরে গিয়েছিল চট্টগ্রাম আবাহনী। অবশ্য এর আগের বার (২০১৬) ফাইনালে আবাহনী লিমিটেডকে একই ব্যবধানে হারিয়ে স্বাধীনতা কাপ নিজেদের করে নিয়েছিল বন্দরনগরী চট্টগ্রামের দলটি। এবারেও শুরুটা দারুণ হলো গতবারের রানার্সআপ চট্টগ্রাম আবাহনীর। গ্র“প পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই দারুণ জয় পেয়েছে তারা। সোমবার (আজ) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বি গ্র“পের খেলায় বন্দর নগরী চট্টগ্রামের দলটি ৩-০ গোলে হারিয়েছে নোফেল স্পোর্টিং ক্লাবকে। কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করার জন্য চট্টগ্রাম আবাহনীকে অন্তত আরও একটা ম্যাচ জিততে হবে। বি গ্র“পের অপর ম্যাচে গতকাল গোল শূন্য ড্র করেছে মোহামেডান ও রহমতগঞ্জ।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে খেলতে নেমে ম্যাচের শুরু থেকেই দূরন্ত খেলতে থাকে চট্টগ্রাম আবাহনী। ম্যাচের ১৯তম মিনিটেই এগিয়ে যায় তারা। বাইসাইকেল কিকে দুর্দান্ত এক গোল করেন মামাদো বাহ। নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড মাগালান আওয়ালার লম্বা পাসের বল ডিফেন্স করতে গিয়ে হেড করেন নোফেলের ডিফেন্ডার। তবে দুর্দান্ত বাইসাইকেল কিকে গোল করেন মামাদো। প্রথমার্ধে আর কোন গোল হয়নি। তবে দ্বিতীয়ার্ধে খেলতে নেমেও দূরন্ত খেলতে থাকে চট্টগ্রাম আবাহনী। ৫৪তম মিনিটে আনিসুর রহমানের কর্নার কিক থেকে বল পেয়ে হেডে গোল করেন নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড মুফতা লাওয়াল। ৬১তম মিনিটে নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড মাগালান আওয়ালার ব্যাক পাসে বল পেয়ে নিজের দ্বিতীয় এবং দলের তৃতীয় গোল করেন মামাদো বাহ।

এদিকে দিনের দ্বিতীয় খেলায় মোহামেডান এবং রহমতগঞ্জ কোন গোলই করতে পারেনি। একের পর এক সুযোগ হারিয়ে দুই দলই ম্যাচের শেষ পর্যন্ত গোল শূন্য থাকে। অবশ্য মোহামেডান-রহমতগঞ্জ ম্যাচ গোল শূন্য ড্রতে শেষ হওয়ায় সুবিধা হলো চট্টগ্রাম আবাহনীর। পরের ম্যাচটা জিতলেই তাদের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত।

এদিকে আজ স্বাধীনতা কাপে এ গ্র“পের ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আরামবাগের মুখোমুখি হচ্ছে টিম বিজেএমসি। প্রথম ম্যাচে বিজেএমসি হেরে গিয়েছিল সাইফের কাছে। টুর্নামেন্টে টিকে থাকার জন্য তাদের জয়ের বিকল্প নেই আজ। তবে আরামবাগ জিতে গেলে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে যাবে সাইফ ও আরামবাগ দুই দলেরই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here