কুড়িগ্রামে ২০১৯ সালের ফুটবল লীগ আর কতদুর..?

0
66

 

ডিএফএ’র সভাপতির উদাসিনতায় এমন প্রশ্নের ছড়াছড়ি ক্রীড়া প্রেমী মানুষদের মাঝে।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর ঢাকার ইন্টার কন্টিনেন্টাল হোটেলে বিডিডিএফএ’র আয়োজনে বাংলাদেশ ফুটবলের সার্বিক অবস্থা ও জেলা ফুটবল লীগ বিষয়ক আলোচনা সভায় বাংলাদেশ ফুটবল এ্যাসেসিয়েশন মহাসচিব তরফদার মো: রুহুল আমিন বলেন লীগ পরিচালনার জন্য কিস্তির এককালীন টাকা ও বল বিতরন করা হয়েছে কর্মকর্তাদের মাঝে। যেকোন সমস্যার সমাধান করতে তারা ইচ্ছুক মর্মে লীগ করতে হবে এমন ঘোষনা দেন তিনি।
সূত্র মতে এ ঘোষনার প্রেক্ষিতে অনেক জেলায় লীগ পরিচালিত হয়েছে এবং হচ্ছে। কিন্তু কুড়িগ্রামে এখন পর্যন্ত কোন লীগ হয়নি বা হবে এমন কোন দৃশ্যপাটও চোখে পরেনি ক্রীড়া সংশ্লিষ্ট ও ক্রীড়া প্রেমিদের চোখে। বিষয়টি নিয়ে ক্রীড়া সংশ্লিষ্টদের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাকবিতন্ডায় প্রথমে লীগের জন্য কোন টাকা পাননি বর্তমান সভাপতি মানস দাস ধলু। আবার পরবর্তীতে ১লাখ ৫০হাজার টাকা পেয়েছে বলে জানা গেছে। এছাড়াও বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনের কাছেও নাকি সহযোগীতা পেয়েছেন ডিএফএ। কিন্তু তার পরও এখন পর্যন্ত ফুটবল লীগের কোন দেখা মিলেনি এ জেলায়।
অন্যদিকে ডিএফএ’র সভাপতি পদে কুড়িগ্রামের বর্তমানে ফুটবল প্রেমি জালাল হোসেন লাইজু সভাপতি পদে নির্বাচনের ঘোষনা দেয়ায় পূর্ব থেকে এ সংগঠনে থাকা বিভিন্ন সুবিধাভোগীদের টনক নড়েচড়ে উঠে। এরই প্রেক্ষিতে প্রতিনিয়ত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পক্ষে-বিপক্ষের বিভিন্ন প্রশ্ন-উত্তর পর্ব চলমান রয়েছ।
জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি মানস দাস ধলু সবসময় ঢাকায় অবস্থান করায়, সম্মুখে এখন পর্যন্ত কোন অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটেনি। তবে ১৯-১০-১৯ইং শনিবার কুড়িগ্রাম স্টেডিয়াম মাঠে মানস দাস ধলুর ভাই বিজন দাস ক্রিকেট খেলার পিচে পানি দেয়ার সময় সেখানে ফুটবল অনুশিলনরত এক ক্ষুদে খেলোয়ার পিচ দিয়ে দৌড় দেয়ার অপরাধে তাকে মার-ধর করে।
এ বিষয়ে জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের রেজাউল করিম রাজুর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, বিজন দাস ক্রিকেটের পিচে পানি দেয়ার সময় এক খেলোয়ার সেখান দিয়ে দৌড় দেয়ায় কাদা হয়। উত্তেজিত হয়ে একটু মারধর করেছে।
বর্তমানে অনুষ্ঠিত না হওয়ায় লীগ ও খেলোয়ারকে মারধরের ঘটনায় ক্রীড়া প্রেমিকদের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

দৈনিক চারিদিকে প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here