এই যেন এক নতুন সাকিব!

0
93

 ৫ জুলাই লর্ডসে পাকিস্তানের সঙ্গে বিশ্বকাপে শেষ ম্যাচ খেলার পর দেড়মাসেরও বেশি সময় ব্যাট বল থেকে দূরে ছিলেন সাকিব আল হাসান। হজব্রত পালন শেষে মাকে মাগুরা রেখে উড়ে গিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্র,পরিবারের কাছে। তাদের নিয়ে শনিবার ভোর হবার আগে (শুক্রবার দিবাগত রাত তিনটায়) ঢাকায় পা রাখেন সাকিব আল হাসান।

শনিবার দুপুর গড়ানোর আগেই প্র্যাকটিসে চলে আসেন সাকিব। সেখানে ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খানের সাথে মিটিং, নতুন কোচের সাথে পরিচিত হওয়া দল ও লক্ষ্য-পরিকল্পনা এবং কৌশল নিয়ে কথাবার্তা বলেন সাকিব। এর পর নেমে যান মাঠে,প্রাকটিসের জন্য।

সবার ধারণা ছিল কিছুদিন বিশ্রাম নিয়ে তারপর হয়তো মাঠের ক্রিকেটে ফিরবেন সাকিব। তবে সবাইকে অবাক করে দিয়ে মাঝ রাতে ফিরে সকালেই প্র্যাকটিসে নেমে পড়েন সাকিব। যেটা অবাক করেছে সবাইকে আর সাকিব যে এখন অনেক বেশি পেশাদার সেটার প্রমান মিললো আবারও। সাকিব অনেক বেশি সিরিয়াস, মনোযোগী এবং অনেক বেশি সময় ধরে অনুশীলনে।

সাকিব সেন্টার উইকেটে তিন দফায় প্রায় দুই ঘণ্টার বেশি সময় ধরে নেটে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করলেন। সকাল ১০টায় বাংলাদেশের অনুশীলন শুরুর পর সাকিবের প্রথম গন্তব্য ছিল একাডেমির জিম। সেখানে আধঘণ্টার বেশি সময় ঘাম ঝরিয়ে ঘড়ির কাঁটা ১১টা ছুঁতেই ব্যাট হাতে নেমে পড়লেন শেরে বাংলার সেন্টার উইকেটে। একটানা প্রায় ঘণ্টাখানেক ব্যাটিং অনুশীলন। তারপর ১০-১৫ মিনিট ড্রেসিংরুমে বিশ্রাম। এরপর আবার নেটে চলে যাওয়া এবং আরও টানা ৩০ মিনিটের বেশি সেখানেই কাটানো। এটাই শেষ নয়। লাঞ্চে ড্রেসিংরুমে এসে দুপুরের খাবার খেয়ে আবার নেটে যাওয়া এবং আরও অনেকটা সময় ব্যাটিংটা ঝালিয়ে নেয়া।

আফগানিস্তান দলে রাশিদ খানের লেগ স্পিন সামলাতে হবে সাকিবদের। তাই লেগে স্পিনের বিপক্ষে নিজেকে ঝালিয়ে নিতে প্র্যাকটিস সেশনে সাকিব ডেকেছিলেন লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেন লিখনকে। অনেকক্ষণ ধরে প্র্যাকটিস করেছেন জুবায়ের হোসেনের লেগ স্পিন বলে।

সাকিবের এই পরিশ্রম দেখে বোঝা যাচ্ছে আফগানিস্তান সফরে জন্য নিজেকে প্রস্তুত করছেন সাকিব। আফগানদের সঙ্গে টেস্টের আগে ১০ দিনের মত সময় পাবেন সাকিব। তাই যতটা সম্ভব নিজেকে প্রস্তুত করছেন সাকিব আল হাসান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here