আজকের ম্যাচে বাংলাদেশেরর প্রতিপক্ষ যে শুধু ভিয়েতনামই ছিলো তা নয়, বলতে গেলে রেফারীর বিপক্ষেও খেলতে হয়েছে বাংলাদেশের মেয়েদের। একের পর একে বাজে সিদ্ধান্ত ম্যাচ থেকে ছিটকেই দিচ্ছিলো প্রায় বাংলাদেশের। তবে অসাধারণ খেলে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।
ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তাই রেফারীর উপর বেজায় চটেছেন বাংলাদেশ দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। সাংবাদিক এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,‘আগে তো অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারিকে খেয়াল করতে হবে। উনি একজন সিনিয়র রেফারি। ২০১৪ সালে ঢাকাতেই উনি আমাদের খেলা চালিয়েছেন। অফসাইড হতেই পারে। আমার প্রশ্ন হল প্রথমে গোলের সিদ্ধান্ত দিয়ে কেনো পরে অফসাউড দেয়া। দ্বিতীয় গোলেও উনি এমনটা করলেন।’

রেফারীদের কাছে এক প্রকার অসহায় বাংলাদেশের মতো ছোট দল গুলো বলে মনে করেন কোচ। রেফারীদের ছোট একটি ভুল সিদ্ধান্ত বদলে দিতে পারে ম্যাচের মোড় উল্লেখ করে কোচ আরো বলেন “রেফারী প্রসঙ্গে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আমরা আগেও বলেছি। উনারা বলেন যে, রেফারিই সঠিক । সাফ হলে বলেন রেফারিরা শিখতে এসেছেন। আর এএফসি বলে তাদের রেফারিরা এলিট। আসলে মেনে নেয়া ছাড়া আর কোনো বিকল্প নাই। সাফে তো আমাকে মাঠ থেকে বের করে দেয়ার ধমকও দেয়া হয়েছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here