আট গোলের ম্যাচে আবাহনীর জয়; নোফেলকে হারিয়েছে আরামবাগ

0
248

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলের ২০ তম রাউন্ডের খেলায় জয় পেয়েছে ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ৫ – ৩গোলে পরাজিত করে তারা।

ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ম্যাচের একেবারে শুরুতেই এগিয়ে যায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। জুয়েল রানা ক্রস থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন নাবিব নেওয়াজ জীবন। এরপর গোল শিটে নাম তুলেন জুয়েল রানা। ম্যাচের ক্রস থেকে উড়ে আসা বলে পা ছুঁইয়ে তা জালে পৌঁছে দেন এই উইঙ্গার। এর নয় মিনিট পর মাসিই সাইঘানির বাড়ানো বলে নিজের দ্বিতীয় ও দলের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন জুয়েল রানা।

বৃষ্টির কারনে মাঠ ভারী হয়ে থাকা স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারছিলো না কোন দলই। প্রথমার্ধের শেষ দিকে দুটি সহজ সুযোগ হাত ছাড়া করেন সানডে চিজোবা। ৪০ মিনিটের সময় একেবারে ফাঁকা পোস্ট পেয়েও বল বাহিরে মারেন এই নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার। এতে আর ব্যবধান না বাড়লে ৩-০ গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় আকাশী নীল বাহিনী।

দ্বিতীয়ার্ধে বল নিজেদের পায়ে রেখে আক্রমন রচনায় মনযোগী হয় আবাহনীর খেলোয়াড়রা। ম্যাচের ৬৫ মিনিটের সময় সানডের দেয়া বল জীবন গোলমুখে হেড করলেও তা প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে প্রতিহত হয়। এর ছয় মিনিট পর জুয়েল রানা বলে সানডে ঠিকভাবে পা লাগাতে ব্যর্থ হলে এগিয়ে যাওয়া হয়নি আকাশী নীল বাহিনীর। ম্যাচের ৭৫ মিনিটে ডি বক্সের মধ্যে ফ্রি কিক অর্জন করে ঢাকা আবাহনী। সেখান থেকে নেয়া মাসিই সাইঘানির জোড়ালো কিক একেবারে গোল লাইন থেকে ফিরিয়ে দেয় ব্রাদার্সের এক ডিফেন্ডার।

এরপরই ম্যাচ নেয় এক নাটকীয়  রূপ। ৭৭ মিনিটের সময় ব্রাদার্সের নেয়া কর্নার ক্লিয়ার করতে গিয়ে উল্টো নিজের জালেই জড়িয়ে দেয় আবাহনীর ডিফেন্ডার টুটুল হোসেন বাদশা। এরপর ম্যাচের ৮৩ মিনিটে মাইনাস হওয়া বলে ট্যাপ ইন করে ব্রাদার্সের পক্ষে দ্বিতীয় গোল করেন মান্নাফ রাব্বি। গোল ব্যবধান ৩-২ এ নেমে আসায় ম্যাচে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বীতার আভাস পাওয়া যায়।

পুরো খেলায় অনেকগুলো সুযোগ মিস করা সানডে ৮৬ মিনিটে গোল করেন। রুবেল মিয়ার পাসে বডি ডস দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন এই স্ট্রাইকার। তবে এর এক মিনিট পর আবারো গোল পায় ব্রাদার্স ইউনিয়ন। সম্মিলিত আক্রমন থেকে জেমস মোগা’র বাড়ানো বলে আবাহনীর গোলরক্ষককে সহজে পরাস্ত করে মিনহাজুল আবেদীন। ম্যাচে যোগ করা অতিরিক্ত সময়ে বদলি নামা মামুন মিয়ার দেয়া বল নিজের নিয়ন্ত্রনে নিয়ে সানডে আরো একটি গোল করলে ৫-৩ গোলে আবাহনীর জয় নিশ্চিত হয়।

এই ম্যাচ শেষে ১৯ ম্যাচ খেলে ১৬ জয়ে ৪৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করে টেবিলের দুই নম্বরে অবস্থান করছে ঢাকা আবাহনী। অন্যদিকে ১৮ ম্যাচে খেলে মাত্র ৩ জয়ে ১২ পয়েন্ট সংগ্রহ করে রেলিগেশন জোনে রয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন।

অন্যদিকে দিনের অন্য ম্যাচে নোয়াখালীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে আরিফুলের জোড়া গোলে নোফেল এসসি’কে ২-১ গোলে হারিয়েছে আরামবাগ কেএস। ম্যাচের ৭ মিনিটে ও ৬৯ মিনিটতে আরামবাগের হয় গোল করেন আরিফুল। গত দুই ম্যাচে হ্যাট্রিক করা ইসমাঈল বাঙ্গুরা ৮৪ মিনিটতে নোফেলের পক্ষে এক গোল শোধ করেন।

এই জয়ে ১৯ ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করে টেবিলের পাঁচ নম্বরে অবস্থান করছে আরামবাগ কেএস। নোফেলের সংগ্রহ ১৮ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট। তাদের অবস্থান ১০ নম্বরে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here