আইপিএলে বিজ্ঞাপন প্রচার নিষিদ্ধ করলো বিসিসিআই!

0
139


স্টাফ রিপোর্টারঃ এশিয়াতে বাণিজ্যিক হিসেবে ক্রিকেটের বাজার খুব চড়া। এর মধ্যে আকাশচুম্বী চাহিদা ফ্র‍্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের। আইপিএল চলার সময় এই টুর্নামেন্টের টিভি রেটিংই থাকে সর্বোচ্চ। খেলার ফাঁকে ফাঁকে বেশ চড়া মূল্যে বিজ্ঞাপন প্রচার করে যার ফায়দাটা বেশ ভালোভাবেই তুলে নেওয়ার চেষ্টা করে সম্প্রচার স্বত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠান। তবে আসন্ন আইপিএলে বিজ্ঞাপন প্রচারের ক্ষেত্রে এবার স্টার ইন্ডিয়াকে নীতিমালা বেঁধে দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

ভারতের এই জাতীয় নির্বাচনের আবহকে ব্যবহার করে বাণিজ্যিক মুনাফা লোটার ইচ্ছা ছিল স্টার ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের৷ তবে তাদের সেই পরিকল্পনায় বাঁধ সেধে দাঁড়ালো বিসিসিআই৷

আইপিএলের ১২ তম মৌসুম মাঠে গড়াবে আগামী ২৩ মার্চ থেকে। এদিকে কিছুদিন আগেই ১৭ তম লোকসভা নির্বাচনের দিন ঘোষণা করেছে ভারতের নির্বাচন কমিশন। যেখানে ১১ এপ্রিল থেকে শুরু সাত দফার ভোটগ্রহণ। শেষ দফার ভোট ১৯ মে। ভোটের ফল ঘোষণা করা হবে ২৩ মে।

আইপিএলের সময় বিপুল সংখ্যক দর্শকদের কাছে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপণ পৌঁছে দিতে পারলে নিঃসন্দেহে বেশ মোটা অঙ্কের মুনাফা আসত সম্প্রচারকারী সংস্থার পকেটে৷ সেই মর্মে স্টার ইন্ডিয়া আবেদনও জানায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কাছে৷ তবে বিসিসিআই ক্রিকেট ও রাজনীতিকে এক সূত্রে গেঁথে ফেলতে রাজি হয়নি৷ বোর্ড তাদের পুরনো অবস্থানে অনড় থেকে টেলিভিশন সম্প্রচারকারী সংস্থাকে স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, আইপিএল চলার সময় স্টার স্পোর্টসের পর্দায় কোনও রকম রাজনৈতিক বিজ্ঞাপণ প্রচার করা যাবে না৷

এই অবস্থায় স্টার স্পোর্টস লোকসভা ভোটের সময় বাড়তি আয়ের লক্ষ্যে বোর্ডের কাছে নিয়ম শিথিল করার আবেদন জানায়৷ সিওএ’র বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনাও হয়৷ শেষমেশ বিনোদ রাইরা নিজেদের অবস্থানে স্থির থাকার সিদ্ধান্ত নেয়৷ শুধু টেলিভিশনের পর্দাতেই নয়, বোর্ড চায়না ফ্র্যাঞ্চাইজিরাও সংশ্লিষ্ট ম্যাচ কেন্দ্রে কোনও রাজনৈতিক বিজ্ঞাপণ প্রচার করুক৷

ক্রিকেট এবং রাজনীতি কে আলাদা রাখতেই এই বিষয়ে কঠোর অবস্থানের কথা বলেছেন ভারতীয় এক ক্রিকেট কর্মকর্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here