অবশেষে নিশ্চিত হলো সালার মৃত্যু

0
272

সাঈদ ইবনে সামস : বিমান দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন আর্জেন্টাইন ফুটবলার এমিলিয়ানো সালা। বিমান দূর্ঘটনার দীর্ঘ ১৫দিন পর তার বিমানের ধ্বংসাবশেষের সাথে একটি মৃতদেহ পাওয়া যায়। মৃতদেহটি ইংল্যান্ডের পোর্টল্যান্ডে নিয়ে যাওয়া হয়। এইখানে ময়নাতদন্ত শেষে পুলিশ নিশ্চিত করেন মৃতদেহটি সালার।

গত ২১ জানুয়ারী ফ্রান্স থেকে ইংল্যান্ড যাওয়ার পথে নিজের ব্যক্তিগত বিমান সহ নিখোঁজ হন সালা। এরপর তাকে তিন দিন খোঁজ করা হয়। না পেয়ে খোঁজ করা বন্ধ করে দেয় সংশ্লিষ্ট বাহিনী। পরে সমালোচনার মুখে এবং ফুটবলপ্রেমীদের চাপে আবারো তাকে খোঁজ করা শুরু হয়।

গত ৩ ফেব্রুয়ারী সালার ব্যক্তিগত বিমানের ধ্বংসাবশেষ পাওয়া যায় একটি গলিত মৃতদেহ সহ। পরে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে নিশ্চিত হওয়া যায় যে মৃতদেহটি সালার। বিমান দূর্ঘটনার আগে তিনি পরিবারে জন্য একটি অডিও বার্তাও দিয়ে যান।ফুটবল বিশ্বে এখনো শোকের ছায়া রয়েছে। কিছু্দিন আগেই নিজের ক্লাব নঁতে থেকে ১৭ মিলিয়নের বিনিময়ে ইংল্যান্ডের ক্লাব কার্ডিফ সিটিতে যোগ দেন তিনি। কিন্তু কার্ডিফডের হয়ে আর মাঠে নামা হলো না তার।

সালার ট্রান্সফারের পুরো অর্থ দাবি করেছে তার সাবেক ক্লাব নঁতে। তিন ধাপে ১৭ মিলিয়ন দেয়ার কথা ছিলো। সালার সাথে পুরোপুরি চুক্তি সম্পূন্ন হওয়ায় কার্ডিফকে পুরো অর্থ পরিশোধ করতে হবে। কিছুদিন সময় নিয়েই তারা টাকা পরিশোধ করবে বলে জানিয়েছেন।

২৮ বছর বয়সী এই ফুটবলার ১৯৯০ সালে ৩১ অক্টোবর আর্জেন্টিনার সান্টাফেতে জম্মগ্রহন করেন। ১৯৯৪ সাল থেকে যুব পেশাদার ফুটবল খেলেছেন তিনি। ২০০৯ সালে তিনি পেশাদার ফুটবলে নতুন জীবন শুরু করেন। কারটো নামের একটি ক্লাবে ১ম্যাচ খেলে এরপর যোগ দেন বর্দোতে। এই দলের রিজার্ভের হয়ে খেলেছেন সালা। ২০১১-১২ মৌসুমে লিঁওনের বিপক্ষে ফ্রেঞ্চ কাপে বর্দো এর হয়ে অভিষেক হয় তার। এরপর সালাকে লোনে লিগ-২ এর দল ওরলিয়েন্সে দলে ভেড়ায়। সেখানে ৩৭ ম্যাচে ১৯টি গোল করে।

পরের মৌসুমে লিগ-২ আরেকদল নিয়ররে যোগ দেন লোনে। সেখানেও ৩৭ ম্যাচ খেলে গোল করেন ১৭টি। ২০১৪-১৫ মৌসুমে প্রথমে নিজের দল বর্দোতে ফিরে ১১টি ম্যাচ খেলেন যেখানে তার গোল ১টি। এরপর তিনি ফ্রান্স ক্লাব কিঁনে লোনে যোগ দেন। যেখানে ১৩ ম্যাচে গোল করেন ৫টি।

২০১৫-১৬ মৌসুমে মাত্র ১ মিলিয়ন ট্রান্সফার ফি দিয়ে তাকে দলে নেয় নঁতে। সেই মৌসুমে ৩১ ম্যাচ খেলে গোল করেন ৬টি। ২০১৬-১৭ মৌসুমে ৩৪ ম্যাচে ১২টি গোল পান সালা। এরপর ২০১৭-১৮ মৌসুমে ৩৬ খেলায় ১২টি গোল করে ফর্মের তুঙ্গে ছিলেন এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার।

২০১৮-১৯ মৌসুমেই নিজের সেরা খেলাটা খেলে যাচ্ছিলেন সালা। ১৯ ম্যাচেই ১২টি গোল করে সকলে নজরে চলে আসেন। তাই তো ১৭ মিলিয়ন দিয়ে কার্ডিফ সিটি তাকে দলে ভেড়ায়। কিন্তু কার্ডিফের হয়ে অভিষেক হওয়ার আগেই ঈশ্বরের দলেই যেন অভিষেক হয়ে গেলো তার। হয়তো কিছুদিন পর তাকে ভুলে যাবে ফুটবল বিশ্ব। ফুটবলের তেমন স্মরনীয় কিছু করে রাখার আগেই যে মৃত্যু হলো এই ফুটবল প্রতিভার। কিন্তু পুরো ফুটবল বিশ্বকে নাড়িয়ে দিয়ে গেছেন সালা। ওপারে ভালো থাকবেন এমিলিয়ানো সালা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here